মানিকগঞ্জ শিবালয়ে তালিকাভুক্ত শীর্ষ ইয়াবা কারবারি উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ইয়াবা সেলিম ও সহ সভাপতি মীমকে গ্রেফতারে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের সাড়াশি অভিযান। হন্যে হয়ে খুজছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

 

মাদকের বিরুদ্ধে প্রশাসনের জিরো টলারেন্স নির্দেশনায় তালিকাভুক্ত দুই মোস্ট ওয়ান্টেড শীর্ষ ইয়াবা কারবারি যথাক্রমে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ইয়াবা সেলিম এবং উপজেলা আওয়ামী লীগ সাঃ সম্পাদক পুত্র বহু মাদক মামলার ফেরারি নাজমুল হাসান মীমকে গ্রেফতারে আজ সাড়াশী অভিযানে নেমেছে মানিকগঞ্জ জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। সুত্র মতে,স্থানীয় সাংসউপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতির পরিচয়ে দীর্ঘদিন ইয়াবা সেলিম আন্ত জেলা মাদকের বৃহৎ চালান বিভিন্ন জেলায় সিন্ডিকেটের মাধ্যমে পরিচালনা ও ঘিওর শিবালয় এলাকার ইয়াবা বৃহৎ মাদক কারবারি।উল্লেখ্য যে; মাসখানেক পূর্বেই র‍্যাব পুলিশ যৌন অভিযানে ভয়ঙ্কর অপরাধী সেলিমের নামে হত্যাচেষ্টা, ডাকাতি সহ মাদকদ্রব্যের ১২ টি মামলা থাকলেও স্থানীয় সাংসদ ঘনিষ্ঠতায় সেলিমকে কগ্রেফতার সম্ভব হয়নি।ভয়ানক অপরাধী সেলিমের বিষয়ে জানা গেছে।সে নদী পথে সহ পার্শ্ববর্তী জেলাগুলোতে কন্ট্যাক্ট এ ডাকাতির সিন্ডিকেটের সঙ্গেও জড়িত।এদিকে আজ সকালে উপজেলা আওয়ামী লীগ সা.সম্পাদক ভূমিদস্যু মামলার প্রধান আসামী


আব্দুল কুদ্দুস ( কুলু কুদ্দুস) এর বাসভবন ও দোকানে গোয়েন্দা টিম ঘেরাও করলেও তার পুত্র ইয়াবা মীমকে এখনো পাওয়া যায়নি।তবে দ্রুতই দুই শীর্ষ মাদক কারবারিকে গ্রেফতারে সক্ষম হবে বলে গোয়েন্দা সুত্র নিশ্চিত করে।
সর্বশেষ রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত জেলার শীর্ষ মাদক কারবারিদের ধরতে সাড়াশী) চলছে।


জেলা গোয়েন্দা পুলিশের থেকে মানিকগঞ্জব্যাপী আইন শৃঙ্খলা বাহিনী র‍্যাব,পুলিশ শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে সাড়াশী অভিযানে নেমেছে।এদিকে গতরাতে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে বৈঠকে যেকোনো মুল্যে জেলার শীর্ষ মাদক কারবারিদের গ্রেফতারেনির্দেশনা দেয়া হয়। ইতিমধ্যে জাতীয় দৈনিক গুলোতে জেলার তালিকা ভুক্ত শীর্ষ ৩ মাদক ব্যবসায়ী সম্পর্কে বিস্তারিত প্রকাশিত হয়।শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীর তালিকায় যাদের নাম আসে তারা হলেন-১। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী ও জেলা যুবলীগ আহবায়ক আব্দুর রাজ্জাক রাজা ২।মানিকগঞ্জ ১ এমপি নাইমুর রহমান দুর্জয় এর ভাই জেলা যুবলীগ যুগ্ম আহবায়ক শীর্ষ ইয়াবা কারবারী মাহবুবুর রহমান জনি ৩। বহু মাদক মামলার আসামী বাশার।
প্রসঙ্গত যে, বিগত কয়েক দিনে দেশের জাতীয় পত্রিকায় ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় সাবেক জাতীয় তারকা ক্রিকেটার ও মানিকগঞ্জ ১ আসনের সাংসদ এম নাইমুর রহমান দুর্জয়ের ঘুষ,দূর্নীতি, অনৈতিকতা ও মাদক সম্পৃক্ততার বিস্তারিত প্রকাশিত হয়।প্রকাশিত সংবাদে এরই মধ্যে দেশব্যাপী জনমনে চরম নেতিবাচক প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।আর দলীয় সাংসদের এহেন কর্মকাণ্ডে দল ও সরকারের শীর্ষ মহলও চরম ক্ষুব্ধ ও বিব্রত।এরই প্রেক্ষিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জিরো টলারেন্স ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কঠোর নির্দেশনায় মাদকের কারবারি দের গ্রেফতারে অভিযান চলছে। ইতিমধ্যে পুলিশ সুপার গতবছর থেকেই জেলাব্যাপী মাদক নির্মূলে জোড়ালো পদক্ষেপ গ্রহণ করলেও রাজনৈতিক প্রভাবে কিছু ব্যক্তির সম্পৃক্ততায় তা নির্মুল সম্ভব হয়নি।

Categories: জাতীয়,টপ নিউজ,ব্রেকিং নিউজ,রাজনীতি,সারাদেশ

Leave A Reply

Your email address will not be published.

ব্রেকিং নিউজ